শনিবার, ২১শে জুলাই, ২০১৮, ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৫, ৯ই জিলক্বদ, ১৪৩৯

You Are Here: Home » সাহিত্য গ্যালারী

একদিনের গল্প

আনিসুল হক: সাইকেল চালাচ্ছেন তাজউদ্দীন। সাইকেলে একটা নতুন সিটকভার লাগিয়েছেন। সবুজ রঙের। সেটা এখনো জুতমতো বসে নাই। একধরনের অস্বস্তি হচ্ছে। নবাবপুর রোডে একটা ঘোড়াগাড়ির পেছনে পড়েছেন তিনি। ঘোড়াগাড়িটাকে ক্রস করতে পারছেন না। বিপরীত দিক থেকেও গাড়িঘোড়া আসছে। রিকশা আসছে। সন্ধ্যার পরে দখিনা বাতাস বইতে শুরু করেছে। এই সময় সাইকেল চালাতে বড় ভালো লাগে ৩২ বছর বয়সী তাজউদ্দীনের। তাঁর গায়ে একটা হাফহাতা সুতির শার্ট। পরনে প্যান্ ...

Read more

এ গল্পের শেষ নেই (ধারাবাহিক)

শীলাজ ইসলামঃ আমরা সন্ধার পর ইয়াকুব ভাইয়ের বাসায় এসে পোঁছলাম। সেখানেই পেলাম শামীম ও রুহুলকে।ওরা আমাদের আগেই এসে পোঁছেছে। সবাই উচ্ছল হয়ে উঠলাম। আমার কাঁধের উপর হাত রাখতে রাখতে শামীমের জিজ্ঞাসা , " ভাই , আশাকরি ভাল আছেন ''। পাশে রুহুল, সারা মুখে স্নিগ্ধতার হাসির ঢেউ উপচে পরছে। জবাব দিলাম ,'' ভাল আছি , তবে সকালে হাসপাতালে যাবার পথে বেশ ঝামেলা হয়েছিল"। আমার এ কথা শুনে শামীম ও রুহুল পরস্পরের দিকে বারকয়েক তাকালো। ...

Read more

আমার আমলা জীবন (ধারাবাহিক)

খালেদ মুহিউদ্দিনঃ আমার আমলা জীবন-১২ আমরা তিনজন তখনো বসবার নির্দিষ্ট জায়গা পাই নাই। এনডিসি, আরডিসি আর এডিসি জেনারেলের ঘরে ঘুরে ঘুরে বসে থাকি। মাঝে মাঝে ডিসি সীতেশ রঞ্জন দেব এর ঘরে আমাদের ডাকা হয়। দুপুর বেলা কোর্ট শেষ করে এই ধরেন, দুইটার দিকে ম্যাজিস্ট্রেটরা বাসায় যান, খেতে আর ভাতঘুম দিতে খানিকটা। আমরাও ফিরে আসি ডেরায়। বিকেলে মুরুব্বিদের দেখাদেখি আরেকবার অফিসে যাই। আওয়ামী লীগ সরকার তাদের ওই আমলে সার্বিক সাক্ষ ...

Read more

এ গল্পের শেষ নেই (ধারাবাহিক)

শীলাজ ইসলামঃ রাত আটটার দিকে হোটেলে ফিরলাম। দেখা হলো সিসিলির সাথে। মেয়েটা বেশ। মিষ্টভাষী। সাড়ে পাঁচ ফুটের মত লম্বা। একহারা চেহারা। হোটেলের ফ্রন্টডেস্কে কাজ করে , রিসিপশনিস্ট। এগিয়ে গেলাম তার দিকে। জিজ্ঞেস করলাম , হোটেলে লন্ড্রী সার্ভিস আছে কিনা। হাসির স্নিগ্ধতা ছড়িয়ে বললেন , 'না' । আর দেরী না করে রুমে চলে এলাম। সকালে আমাদের সবাইকে মেডিকেল টেষ্টের জন্য হাসপাতালে যেতে হবে। বিছানায় গা এলিয়ে দিলাম। ক্লান্তির গভী ...

Read more

আমার আমলা জীবন (ধারাবাহিক)

খালেদ  মুহিউদ্দিনঃ   আমার আমলা জীবন-৯ ফাইনালি নরসিংদী কালেক্টরটে নিয়োগ পেলাম রাজীব, রাহেদ আর আমি। ঝকঝকে দুটি ছেলে। মেধার ধারাবাহিকতায় রাজীব ৫ম, রাহেদ ১৫তম। আমরা তিনজনই ঢাকা ভার্সিটির, আমি আর রাজীব ব্যাচমেট, রাহেদ ভাই তিন ব্যাচ সিনিয়র। বাক্স-পেটরা সার্কিট হাউসে রেখে আমরা জয়েন করলাম। একজন সিনিয়র অফিসার (সম্ভবত সেলিম রেজা) আমাদের ডিসি অফিস ঘুরিয়ে দেখালেন। সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার দেখা করতে এলেন। অনায়াসে ...

Read more

এ গল্পের শেষ নেই (ধারাবাহিক)

শীলাজ ইসলামঃ আমাদের প্রিয় শামীম ও রুহুল..     চৌকস চেহারার ওরা দুজনই বিশববিদ্যালয়ের সেরা ছাত্র। শামীম চিকিৎসা বিজ্ঞানের , রুহুল ইংরেজী সাহিত্যের। ফরাসী সরকারের স্কলারশীপ নিয়ে কূটনীতির উপর প্রায় দু'বছরমেয়াদী উচ্চতর পড়াশোনার জন্য ওরা এক বছর হলো ফ্রান্সে। আর্ন্তজাতিক ইন্সটিটিউট ফর পাবলিক এ্যাডমিনিষ্ট্রেশন (IIAP)-এর আওতায় এ' প্রশিক্ষণ। কূটনীতি ,অর্থনীতি , বিশ্বরাজনীতি , অর্থব্যবস্থাপনা , মানবসম্পদ ইত্ ...

Read more

আমার আমলা জীবন (ধারাবাহিক)

খালেদ মহিউদ্দিনঃ     আমার আমলা জীবন-৬ তিনি ঠিক চিৎকার করে উঠেছিলেন কিনা আমার আর মনে নাই। তবে ডেস্ক টপকে এসে জড়িয়ে যে ধরেছিলেন তা মনে আছে বেশ। তারপর তিনি কী করলেন কাকে বললেন কে জানে? মুহূর্তের মধ্যে শাদা পান্জাবী-পাজামা পরা উনাকে ঘিরে দাঁড়ালো অন্ততঃ কুড়িজন তার বয়সী মানুষ। প্রাথমিক কোলাহল থামলে বুঝলাম তারা সবাই আমার বাবার সহকর্মী। একই রকম কাজ করেছেন, চাকরির শেষ পর্যায়ে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হয়েছেন। ত ...

Read more

এ’ গল্পের শেষ নেই

শীলাজ ইসলামঃ আমার এ' গল্পের শেষ নেই। তবে শুরুটা ১৯৮৭ সালের ২৪শে অক্টোবর। প্রথম বিদেশে যাওয়া। ঘর থেকে বের হবার আগ মূহুর্তে মা কাছে এসে মাথায় হাত রাখলেন। দোয়া ইউনুস পড়ে আমার মুখে ফুঁ দিলেন। বাম বাহুতে কাল সূতায় মাদূলী বেধে দিলেন। তারপর মা তাঁর চোখ থেকে ভারী লেন্সের চশমাটা নামালেন। শাড়ীর আঁচলে চোখ মুছতে মুছতে আমার মাথাটা তাঁর বুকে টেনে নিলেন। আহা সন্তানের জন্য মায়ের একি হৃদয় ছোঁয়া কষ্ট ও ভালবাসা! কষ্ট আমার বুক ...

Read more

আমার আমলা জীবন

খালেদ মহিউদ্দিনঃ   আমার আমলা জীবন-১; ২০০০ সালের দ্বিতীয় ভাগ।এসাইনমেন্ট জমা হয়ে গেছে। অকারণ ঘুরাঘুরি করছি নিউজরুমে। লাবলু ভাই ডেকে একতাড়া কাগজ ধরিয়ে দিলেন। ২০তম বিসিএস পরীক্ষার রেজাল্ট দিয়েছে, একটা রিপোর্ট বানিয়ে দেন। দুই এর পাতা মার্কও করে দিলেন নগর সম্পাদক। আমি কাগজগুলো নিয়ে দূরতম কোনায় গিয়ে বসি। ভয়ে ভয়ে পাতা উল্টাই। রোলনম্বর ছোট করে লিখে রেখেছিলাম মানিব্যাগের এক কোণায়। প্রশাসন ক্যাডারের ১৭ নম্বর ক্রম ...

Read more

অহিংসা, আলো এবং আন্দোলন

প্রাচীন ভারতে, খ্রীষ্টপূর্ব পাঁচ হাজার বছরেরও আগে, বৈদিক সময়ে জ্ঞান এবং সভ্যতা সমার্থক ছিল। গুরুকুল বা শিক্ষাঙ্গনে, আত্ন নিয়ন্ত্রণ, চরিত্র গঠন, সামাজিক সচেতনতা, ব্যক্তিত্যের বিকাশ, আত্মশুদ্ধিকরণ, জ্ঞান এবং সংস্কৃতির সংরক্ষণ ইত্যাদি বিষয়ে জোর দেয়া হতো। গুরুকুলে নারী এবং পুরুষ শিক্ষার্থীর জন্য পৃথক আবাসিক ব্যবস্থা ছিল । একই গৃহে গুরু বা শিক্ষকদেরও থাকবার ব্যবস্থা ছিল। গুরু-জ্ঞানার্থীর পারস্পরিক নৈকট্য শিক ...

Read more

© 2014 Powered By Sangshadgallery24.com

Scroll to top