বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯ ইং, ২ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী

You Are Here: Home » ফটো গ্যালারী » ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জয়াকে বিয়ে করতে বাধ্য হন অমিতাভ বচ্চন!

২৪ ঘণ্টার মধ্যে জয়াকে বিয়ে করতে বাধ্য হন অমিতাভ বচ্চন!

বিনোদন গ্যালারী ডেস্কঃ

 ৪৬ বছর পর নিজেদের বিয়ের রহস্য উন্মোচন করলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন ।১৯৭৩ সালে বলিউডের শাহেনশা ও জয়ার বিবাহ হয়েছিল।অমিতাভ বচ্চন ও জয়া বচ্চনের সংসার জীবনের বয়স এখন ৪৬ বছর।

মঙ্গলবার ছিল জয়া বচ্চনের ৭১তম জন্মদিন। স্ত্রীর সেই বিশেষ দিনটিতে অমিতাভ তাদের ব্যক্তিগত জীবন,ক্যারিয়ার এবং বিবাহিত জীবন সম্পর্কে এমন বহু কথা বলেছেন যা আগে কখনোই জানা যায়নি।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সম্প্রতি ক্যাফের কোমল নাহাটার শো ‘স্টোরি নাইটস ২’ -তে আমন্ত্রিত ছিলেন অমিতাভ বচ্চন ও তার কাছের প্রোডিউসার-ডিরেক্টর আর. বাল্কি। সেখানেই নিজের বিয়ের রহস্য উন্মোচন করেছেন এই অভিনেতা।

ওই শোতে জয়া বচ্চনের সঙ্গে কাটানো বহু সুন্দর মুহূর্ত শেয়ার করতে গিয়ে অমিতাভ জানান, মাত্র ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে তাদের বিয়ে করতে হয়েছিল।

বলিউডের বিগ বি বলেন, ‘তখন জয়া আর আমি জঞ্জির ফিল্মের জন্য কাজ করছিলাম। টিমের প্রায় প্রত্যেকেই ঠিক করেছিল যে, যদি সিনেমা সাফল্যের মুখ দেখে তাহলে সবাই মিলে লন্ডনে ছুটি কাটাতে যাওয়া হবে। আমি এই কথাটা যখন আমার বাবাকে জানাই তখন তিনি আমাকে জিজ্ঞাসা করেন যে, আমার সঙ্গে আর কে কে ঘুরতে যাবে? তিনি যখনই জয়ার নাম শোনেন তখনই তিনি বলেন, তোমাদের বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত আমি তোমাদের দুজনকে একসঙ্গে লন্ডনে যেতে দেব না। তখন আমি বলি,ঠিক আছে তাহলে কালই আমার বিয়ে করব। তাড়াহুড়োর মধ্যে সামান্য প্রস্তুতি নিয়ে বিয়ে করে নিয়েছিলাম। পরের দিনই আমার লন্ডনে চলে যাই।’

এই অনুষ্ঠানে বিখ্যাত প্রযোজক আর. বাল্কি অমিতাভ বচ্চন সম্পর্কে খুবই মজাদার একটি ঘটনা শোনান। তিনি বলেন, ‘আমার মনে আছে,আমি যখন তার জন্মদিনে গিয়েছিলাম তখন আমার হাতে কোনো গিফট ছিল না। তখন আমার মাথায় একটাই কথা ঘুরছিল, তাকে কী গিফট দেওয়া যায়। আমার মাথায় একটা আইডিয়া আসে,আমি ফিসফিস করে তার কানে কিছু কথা বলি। কণ্ঠস্বর থাকবে আপনার আর সামনে থাকবে অন্য কেউ। আর এভাবেই এক নতুন ফিল্মের জন্ম হয়।’

Tweet about this on TwitterShare on Google+Print this pageShare on LinkedInShare on Tumblr





© 2014 Powered By Sangshadgallery24.com

Scroll to top