সোমবার, ২৭ মে ২০১৯ ইং, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২ রমযান ১৪৪০ হিজরী

You Are Here: Home » শীর্ষ খবর » জাহিদের পর বিএনপির আরও দুএকজন শপথ নিবেন যে কোন দিন

জাহিদের পর বিএনপির আরও দুএকজন শপথ নিবেন যে কোন দিন

সংসদ প্রতিবেদক:

ইতিমধ্যে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথ নিয়েছেন  ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত জাহিদুর রহমান।বৃহস্প্রতিবার তিন স্পিকারের কাছে শপথ নেন । সময় বাকি আর মাত্র চার দিন। আগামী ৩০ এপ্রিলের মধ্যে শপথ নিতে হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে বিজয়ী বাকি পাঁচ প্রার্থীকে। সুনির্দিষ্ট কারণ দেখিয়ে স্পিকারকে চিঠি না দিলে ৩০ এপ্রিলের পর তাদের আসন শূন্য হয়ে যাবে। পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে এসব শূন্য আসনে অনুষ্ঠিত হবে উপনির্বাচন।

সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে ফল বর্জন এবং শপথ না নেওয়ার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিএনপি, তা  অমান্য করে একজন শপথ নিয়েছেন।

কিন্তু মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়া দলীয় এই সিদ্ধান্ত বিনাবাক্যে মেনে নিতে পারছেন না বিজয়ী অন্য প্রার্থী। তারা এখনো আশায় আছেন, শেষ মুহূর্তে হয়তো সিদ্ধান্ত বদলাবে বিএনপি। কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং নির্বাসনে থাকা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছ থেকে আসবে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত।

আর তা যদি না আসে তাহলে জাহিদের পথ ধরে যে কোন দিন শপথ নিতে পারেন ব্রহ্মণবাড়িয়া-২ আসন থেকে নির্বাচিত  উকিল আব্দুস সাত্তার। এর আগেও তিনি কয়েকবার ঐ আসনের এমপি ছিলেন। প্রতিমন্ত্রীও ছিলেন একবার । জীবনের শেষ প্রান্তে এসে এমপির স্বাদ  না সামলাতে পাড়ছেন না ।

এ বিষয়ে উকিল আব্দুস সাত্তার বলেন, ‘আমি শপথ নিতে চাই। কিন্তু দল তো চায় না। আর দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথ নেওয়াটা কঠিন। আরও পাঁচ দিন সময় আছে, দেখা যাক কী হয়।’

একই অবস্থা চাপাইনবাবগঞ্জ-২ আসন থেকে নির্বাচিত প্রার্থী মো. আমিনুল ইসলা্মের। তিনি বলেন, ‘ঢাকাতেই আছি। তবে শপথের ব্যাপারে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। দলীয় সিদ্ধান্তের খবর তো সবাই জানেন। তিনিও যে কোন সময় শপথ নিতে পারেন ।

একই পথ অবলম্বন করতে পারেন বগুড়া-৪ আসন থেকে নির্বাচিত মো. মোশারফ হোসেন। শেষোক্ত দুজনের আসন বিএনপির ঘাটি বলা জায়।তাই তারা বেশী দিধাদন্দে আছে। এখন ত্যাগ করলে ভবিষ্যতে ভালো হওয়ার আশা আছে । আবার এই সুযোগ হাতছাড়া করাও কঠিন ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, শেষ পর্যন্ত শপথ গ্রহণ করতে পারবেন—এমন বিশ্বাস থেকেই চাপাইনবাবগঞ্জ-২ আসন থেকে নির্বাচিত মো. আমিনুল ইসলাম, চাপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসন থেকে নির্বাচিত হারুনুর রশীদ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন থেকে নির্বাচিত উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া এখন রাজধানীতে অবস্থান করছেন। আর বগুড়া-৬ আসন থেকে নির্বাচিত প্রার্থী বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তো ঢাকাতেই থাকেন।

Tweet about this on TwitterShare on Google+Print this pageShare on LinkedInShare on Tumblr





© 2014 Powered By Sangshadgallery24.com

Scroll to top